//কেনো আমি উত্তর কোরিয়ার নির্বাচনী ব্যবস্থার অনুরাগী

কেনো আমি উত্তর কোরিয়ার নির্বাচনী ব্যবস্থার অনুরাগী

আলোকচিত্রঃ কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি (কেসিএনএ)
____________________________________________________________
উত্তর কোরিয়ার — যার আনুষ্ঠানিক নাম কোরিয়া গণতান্ত্রিক জনপ্রজাতন্ত্র — নির্বাচনী ব্যবস্থাটা আমার ভালো লাগে। কোনো জটিলতা নাই। নির্বাচনের দিন আপনি ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত হবেন। ব্যালট পেপারে দেখবেন খালি একজন প্রার্থীর নাম। পার্টিকর্তৃক পূর্বনির্ধারিত প্রার্থী। তত্ত্বগতভাবে আপনি না ভোট দেয়ার অধিকার রাখেন। বাস্তবে যদি আপনার হারিয়ে যাওয়ার শখ না থাকে, অবশ্যই আপনি হ্যাঁ ভোট দেবেন, তারপর নীড়ে ফিরে আসবেন।

২০১৪য় সুপ্রীম লিডার তাঁর পূর্বপুরুষের স্মৃতিবিজড়িত মাউন্ট পেকতুর নির্বাচনী আসন থেকে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন। উত্তর কোরিয়ার নাগরিকরা স্বাধীনভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। সুপ্রীম লিডার ১০০% ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন (১)।

জং-উন তাঁর পিতার চেয়ে ০.০১% বেশি জনপ্রিয়। কারণ ২০০৯এর নির্বাচনে জং-ইল ৯৯.৯% ভোট পেয়েছিলেন (২)। তবে ২০০৩এ জং-ইলের জনপ্রিয়তা ছিলো তাঁর পুত্র জং-উনের বর্তমান জনপ্রিয়তার সমান, কারণ সেবার তিনি ১০০% ভোট পান (৩)।

যেহেতু মহান নেতা কিম ইল-সুং না থাকলে উত্তর কোরিয়া স্বাধীন হতো না, তাই এই পরিবারের কেউ ক্ষমতায় থাকে বলেই উত্তর কোরিয়া স্বাধীন থাকে, সুপ্রীম লিডাররাই উত্তর কোরিয়া।

সুপ্রীম লিডারের বশ্যতা স্বীকার করে নেয়াটাই স্বাধীনতা। পিতা ইল-সুং’এর পরে পুত্র জং-ইল, পুত্র জং-ইল’এর পরে নাতি জং-উন; সেক্সুয়ালি ট্রান্সমিটেড লিডারশিপ; এবং একটি সুখী জনপদ। দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকরা এই স্বাধীনতাসুখ থেকে বঞ্চিত। তারা বাস করে শিউরে ওঠার মতো পরাধীনতায়। ৩৮তম সমান্তরালের উত্তরে তাই স্বর্গ, দক্ষিণে নরক। নারকীরাই কেবল শক্তিশালী অর্থনীতি, মুক্ত গণমাধ্যম, আর সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মতো বীভৎস বাস্তবতার ভেতরে থাকতে পারে। বশ্যতাই যে স্বাধীনতা এটা তারা বোঝে না।

___________________________________________________

তথ্যসূত্রঃ
(১) https://www.washingtonpost.com/news/morning-mix/wp/2014/03/10/not-one-vote-cast-against-kim-jong-un-in-his-first-election/?utm_term=.7f3809f2ccdf
(২) https://www.nytimes.com/2009/03/09/world/asia/09iht-north.1.20696199.html
(৩) http://archive.ipu.org/parline-e/reports/arc/2085_03.htm

 

Please follow and like us: